Bangla Love Story | Bondhuttota Valobashar part (1)

কিরে কই তুই কখন থেকে দাড়িয়ে আছি তুই কি আসবি না???? না আসলেও বলে দে আমি বাসায় চলে যাবো আমার ভালো লাগছে না সেই বিশ মিনিট আগে কল দিয়েছি বললি বের হয়েছিস। আর এখনো তোর আসা হলো না???? - দোস্ত আসছি থাম অনেক জ্যাম চলেই আসছি আর একটু থাম যাস না। - দুই মিনিট ওকে? আর বেশি টাইম লাগলে চলে যাবো রাখ ফোন। শীতের সকাল। শীতে সকালে অনেক ঘুম আসে আর এই সময় পেত্নিটা কল দিয়ে বাইরে সাইকেল চালানোর জন্য ডাকছে। যেতে ও ইচ্ছা করছে না এই ঠান্ডায় কম্বল জরিয়ে শুয়ে থাকতেই সবার ভালো লাগে। কেনো যে রাতে কথা দিয়েছিলাম ভোরে ঘুরতে বের হবো ধুর। কাপতে কাপতে একটা গরম কাপড় পরে সাইকেল নিয়ে বের হয়ে পড়লাম গান শুনতে শুনতে সাইকেল চালাচ্ছি যেইদিকেই তাকেই সেইদিকেই কুয়াশা সব মানুষ হয়তো এখনো ঘুমাচ্ছে। সাইকেল চালিয়ে মিশুর কাছে যাচ্ছি। কারণ আমি জানি সেই কথায় আসে। আমরা দুইজনই গ্রামে থাকি আর গ্রামে ছোট্ট একটা নদী আসে আর পাশে মাঠ সেই মাঠে তাকে বলেছিলাম দারিয়ে থাকতে। ওর কাছে গিয়ে দেখি নদির দিকে তাকিয়ে কি যেনো একটা ভাবছে। - কি ভাবছেন মহারানী জানতে পারি??? - আমি ভাবছি একটা কুত্তাকে যদি এই পানি তে ফেলা যায় তার কি অবস্থা হবে??? - কি আর হবে গোসল করে উঠে চলে আসবে। - ওহ আচ্ছা তাই তাহলে যা দেখি। - আমি কুত্তা নাকি আমি যাবো এমনি ঠান্ডায় কাপছি তার মধ্যে খোলামেলা জায়গা ঠান্ডা হাওয়া হচ্ছে। - তো এইখানে আমি তো একটা কুত্তায় দেখতে পাচ্ছি মনে হচ্ছে লাথি মেরে এই পানি তে ফেলে দেয় তাহলে শান্তি পেতাম। - হয়েছে???? কিসের জন্য আমার ঘুমটা ভাঙিয়ে এইখানে ডাকলেন বলবেন??? - তোর সাথে প্রেম করবো তাই ডাকছি কুত্তা। - না না আপনার সাথে প্রেম করার চেয়ে আমাদের গ্রামের রোকেয়া কে করা আরো ভালো হবে। - কিহহহহহহ ওই পাগলীর সাথে আমার তুলনা দিচ্ছি কুত্তা তোকে আজকে খায়ছি। তোর প্রেমের গুষ্টি। ভাগো পেত্নি খেপছে। এইটা বলেই সাইকেল নিয়ে অনেক দিলাম টান পিছে পিছে মিশুও আসছে। কিন্তু আমার সাথে পারছে না কিন্তু তার মুখ আর বন্ধ হচ্ছে না চিল্লায় যাচ্ছেই গরুর মতো। ওই আমাক্র ধরার জন্য পিছে পিছে আসছে আর আমি গান শুনতে শুনতে সাইকেল চালাচ্ছি। কিছুটা গরম অনুভব করছি অনেক রাস্তা সাইকেল চালিয়েছি সাইকেলটা থামিয়ে পিছে তাকিয়ে দেখি মিশু নাই। আজব পেত্নি টা কই হারিয়ে গেলো??? এই পেত্নির জালায় আর থাকতে পারবো না। এই এলাকা টা চিনি ও না নতুন জায়গা মনে হচ্ছে অনেক দুরে চলে আসছি কুয়াশায় তখন কিছু দেখা যাচ্ছিলো না। এখন কিছুটা পরিষ্কার হয়েছে। যেই রাস্তা দিয়ে আসছিলাম ওই রাস্তা দিয়েই মিশুকে খুজতে খুজতে যাচ্ছি। তাকে ফোন করলাম ফোন ও অফ পাচ্ছি এই এলাকায় কিছু হয়ে গেলো নাকি বুজতেও পারছি না কিছুটা সামনে যেতে একটা মেয়ের আওয়াজ পেলাম সাথে একটা ছেলের খুব চিল্লিয়ে কথা বলছে কথা শুনেই বুজে গেছি এইটা মিশু। আরও কাছে গেলাম দেখি একটা ছেলে তাকে জালাচ্ছে। আমি - কি সমস্যা ভাই????? অচেনা ছেলেটি - তোর কিবে??? যেইখানে যাচ্ছিলি সেইখানে যা। - দেখো ভাই ভদ্র ভাবে কথা বলো একটা মেয়ের সাথে রাস্তায় কি হচ্ছে????? - তুই যাবি নাকি হাত পা ভেঙে দিবো। মিশু - দেখ আমি এইদিক দিয়ে যাচ্ছিলাম এতো কুয়াশায় দেখতে পায়নি ওর সাথে লেগে গেছে। আমি সরি বলছি আমাকে থাপ্পড় মারছে। ( মিশু কাদছে) যতো হোক ছোট থেকেই সুবাই যানে মিশুর কান্না আমি সহ্য করতে পারি না। ছেলেটাকে দিলাম এক লাথি মাটিতে পরে গেলো। সামনে একটা বাশ ছিলো সেইটা দিয়ে তার হাতে পায়ে মারছিলাম রাস্তায় কোনো মানুষ নাই। অনেক মারার পর মিশু বাধা দিলো। আমি - দেখ ছোট ভাই অনেক বড় জায়গায় তুই হাত দিয়েছিস আমার আজকে ছেড়ে দিলাম ভালো থাক। আমি চলে আসছিলাম মিশু ও সাথে আসলো দুইজন সাইকেল চালাচ্ছি কারও মুখে কোনো কথা নাই। মিশু - আচ্ছা এতো রেগে গেছিলি কেনো এতো মারলি কেনো বেচারা উঠতে পারবে না বিছানা থেকে অনেকদিন ইস। - চুপ পিচ্চিদের মতো কাদছিলি কেনো?? ছেলে হয়েছে তো কি হয়েছে তুই একটা থাপ্পড় মারতে পারলি না?? আর আমাকে বলিস আমাকে মেরে ফেলবি???? - ভয় লাগছিল যদি আরও বেশি কিছু করে দিতো। আর ওইতো আমাকে থাপ্পড় মারেনি আমার সাথে চিল্লায় কথা বলছিলো আমার রাগ উঠছিলো কিছু করতে পারছিলাম না তাই নাটক করলাম তোর সাথে। - মানে এমনি এমনি ছেলেটাকে এতো মারলাম??? - এমনি কেনো ভালো করছিস মারছিস। তুই না আসলে আমিই মেরে দিতাম মারবো মারবো ভাবছিলাম তুই চলে আসছিস। - অরে আমার গুন্ডিরে চল বাসায় এইগুলো বিষয়ে বাসায় কথা বলবি না ওকে?? - হুম আচ্ছা। মিশুকে নিয়ে চলে আসলাম ওই ওর বাসায় চলে গেলো আমি আমার বাসায়। এই মেয়ের জন্য কতো ছেলেকে মারছি ছোট থেকে আল্লাহ ভালো জানে। ছোট থাকতে যখন স্কুলে পড়তাম তখন তাকে একটা ছেলে আই লাভ ইউ বলছিলো মিশু দিয়েছিলো একটা থাপ্পড় বসায়। তখন ছেলেটাও তাকে মেরে দেয় আমি সামনেই ছিলাম সেদিন ছেলেটাকে মারছিলাম অনেক সেদিন থেকেই শুরু মিশুকে কেও কিছু বললে মাথা ঠিক থাকে না। কেনো ঠিক থাকে না এইটাও জানি না। আপনারা ভাব্বেন আমি হয়তো তাকে ভালোবাসি কিন্তু তা না, ওর প্রতি ভালবাসা আমার একটুও নাই এগুলো বিষয়ে কখনো ভাবিনি। তাকে শুধু ভালো বন্ধু ভাবি। বাসায় এসে ঘুমানোর আর ইচ্ছা হলো না, নাস্তা করে টিভি দেখছিলাম শুয়ে শুয়ে। বাইরে রোদ ও ওঠেনি যে বাইরে যাবো। কিন্তু শীতকালটা আমার অনেক ভালো লাগে গরমের চেয়ে। কিছু করার নাই একা একা খারাপ লাগছে কিজে করি এইদিকে মিশুও কল ধরছে না মনে হয়ে বেস্ত আছে। কিছু করার নাই যখন বসে বসে গেম খেলি। ( আপনারাও খেলেন খেলা হলে আবার আসবেন) to be continued................................

কোন মন্তব্য নেই

diane555 থেকে নেওয়া থিমের ছবিগুলি. Blogger দ্বারা পরিচালিত.