কমেন্ট রিপ্লে

গল্পটা অনেক বড় হলেও অন্যরকম রোমান্টিক কিছু গল্পের নাম কমেন্ট রিপ্লে . লেখকঃমোঃআসাদ রহমান কোটচাঁদপুর😍ঝিনাইদহ . ফেসবুকের News feed গুলো ঘুরে দেখছিলো একটি মেয়ে.. নাম তার "মীম" কিন্তু কোনো পোস্ট তার পছন্দ হচ্ছিলো না... তাই মিজাজ টা খারাপ লাগছিলো.. কারণ, ফেইসবুকে কথা বলার মত কেউ নেই সবাই যার যার মত ব্যস্ত তাই এইটা করে অবসর সময় টা কাটে মীমের,,, অনেক্ষণ ঘোরার পরে একটা পোস্টে মীমের চোখ দাঁড়িয়ে যায়.. পোস্টটা ছিলো একটা রোমান্টিক.. গল্পের.. যার শুরুটা ছিলো কষ্টের আর শেষ টা ছিলো অসাধারণ.. গল্পটা মীমের এতোটাই ভালো লাগে যে সে কমেন্ট না করে থাকতে পারলো না.. কমেন্ট টা ছিলো এই রকম "আপনার লেখা গল্পটা হৃদয় ছুয়ে গেলো এতো অসাধার গল্প কখনো পড়িনি আমি অনেক ধন্যবাদ গল্পটা লেখার জন্য" কমেন্ট টা লেখা শেষ করে ফেইসবুক বন্ধ করে বের হয়ে আসে মীম.. এর পর সারাদিন আর রাতে ফেইসবুকে যাওয়া হয়নি মীমের.. পরের দিন ফেইসবুকে যেয়ে নোটিফিকেশন গুলো চেক করছিলো মীম.. অনেক গুলো নোটিফিকেশনের মধ্যে একটা নোটিফিকেশনে মীম দাঁড়িয়ে গেলো. নোটিফিকেশন টা ছিলো রিফাত নামের একটি ছেলের যে মীমের কমেন্ট এ রিপ্লে করছে.. মীম ভাবে এ তো আমার ফ্রেন্ড না সো রিপ্লে কেনো দিছে? (আসোলে গল্পটা মীম ঠিক পড়লেও গল্পটা কে লিখেছে সেটার দিক খেয়াল করেনি মীম) কমেন্ট রিপ্লে তে যেয়ে মীম দেখলো ছেলেটি লিখেছে " এইটা আমার প্রথম লেখা গল্প আর এই গল্পটা পড়ার জন্য অনেক ধন্যবাদ.. আমি ভাবতে পারিনি এই গল্পটা এতো সুন্দর হয়েছে " রিপ্লে টা দেখে বুঝতে পারলো গল্পটা যে লিখেছে সে রিপ্লে টা করেছে.. তাই মীম আরেকটা রিপ্লে দিলো "হুম.. সত্যি এতো ভালো গল্প কখনো পড়িনি আপনার লেখার প্রতিভা আছে.. লেখা চালিয়ে যান আশা করি ভালো লেখক হবেন" রিপ্লে শেষে আবার News feed গুলো ঘুরে দেখছিলো মীম.. কিছুক্ষণ পর আবার রিপ্লে,, রিফাত নামের ছেলেটির "আপনার কথা শুনে লেখার আগ্রহ টা বেড়ে গেলো আমি চেষ্টা করবো আরো ভালো গল্প লেখার যদি এই ভাবে আপনারা আমাকে সাপোর্ট করেন" রিপ্লে টা দেখে মীম আবার রিপ্লে দিলো "ধন্যবাদ আপনাকে আমরা আপনার কাছ থেকে আবশ্যই আরো গল্প আশা করি ভালো থাকবেন " মীম দেখলো.. গল্পটাই ১ দিনে.. ২ হাজার লাইক আর ৭০০ কমেন্ট পড়েছে.. অনেক মেয়ে অনেক ছেলে কমেন্ট করেছে অনেকে তো আবার গল্পটা পড়ে আবেগে I love u বলে দিয়েছে. মীম মনে মনে হাসলো এই রকম পাগোল ও আছে নাকি একটা পোস্টে I love u বলে দিচ্ছে.. যাই হোক কিছুক্ষণ পর আবার রিপ্লে "জি ভালো থাকার চেষ্টা করবো আপনিও ভালো থাকবেন" মীম ও রিপ্লে দিলো "কেনো আপনি কি ভালো নেই? আপনার গল্পটা তো অনেক হিট হয়েছে আপনার তো খুশি হওয়ার কথা তাই না" রিপ্লে টা শেষ করে fb থেকে বের হয়ে গেলো মীম.. সারাদিন আর fb তে যাই নি.. রাতে fb তে যেয়ে নোটিফিকেশন দেখছিলো মীম.. সে দেখলো আবার রিফাত নামে ছেলেটির রিপ্লে " সত্যি বলতে ভালো নেই জীবন টা অনেক কষ্টের মাঝে যাচ্ছে তার পরেও চেষ্টা করি ভালো থাকার এই আর কি আর গল্পটা আপনারা হিট করেছেন আমি আপনাদের কাছে কৃতজ্ঞ " মীম আবার রিপ্লে দিলো "জীবন তা এতো জটিল ভাববেন না সহজ করে ভাবুন দেখবেন সব আস্তে আস্তে ঠিক হয়ে যাবে.. এন্ড মাইন্ড না করলে একটা কথা জিজ্ঞাস করি? বেসিক্যালি আপনার কষ্টের কারণ টা কি? পারসোনাল কিছু হইলে বলতে হবেনা " রিপ্লে শেষে fb থেকে বের হয়ে যায় মীম.. পরের দিন আবার fb তে ডুকে নোটিফিকেশন দেখছিলো মীম.. কিন্তু, সেই ছেলেটির কোনো রিপ্লে নাই.. মীম ভাবলো হয়তো ব্যস্ত fb তে আসে নাই. তাই সে কিছুক্ষণ fb তে ঘুরে বের হয়ে গেলো.. আবার রাতে fb তে যেয়ে নোটিফিকেশন দেখলো কিন্তু কোনো রিপ্লে নাই.. মীমের একটু খারাপ লাগছিলো.. যে ছেলেটির কি হলো এই ভেবে fb বন্ধ করে ঘুমিয়ে গেলো মীম.. এই ভাবে ২ দিন পার হয়ে গেলো কোনো রিপ্লে নেই..৩ দিনের দিন রিপ্লে এলো রিফাতের " হ্যা ঠিক বলেছেন আপনি জীবন টাকে সহজ করে ভাবা উচিৎ..এবং কষ্ট যেটা ছিলো আজ তার অবসান হলো আমি অনেক খুশী.. কারণ,, একটা চাকরীর অনেক দরকার ছিলো আমার বাবা নেই শুধু মা আছে আর তিনি আমার জন্য অনেক কষ্ট করেছেন তাই চাকরীর খুব দরকার ছিলো আর অনেক ভালো একটা কোম্পানির চাকরি পেয়ে গেছি.. বেতন টাও অনেক ভালো আল্লাহ আমার প্রতি রহমত দান করেছেন সত্যি খুব ভালো লাগছে" মীম রিপ্লে টা দেখে খুশি হলো এবং সে রিপ্লে দিলো "এই ভাবে জীবনে এগিয়ে যান সামনে আরো সু দিন পাবেন বেস্ট অফ লাক " রিপ্লে দেওয়ার কিছুক্ষণ পর আবার রিপ্লে "আমার জন্য দোআ করবেন আমি যেনো জীবনে সফল হতে পারি" মীম ও রিপ্লে দিলো "অবশ্যই দোআ করি আর চাকরী পেয়েছেন বলে গল্প লেখা ছাড়বেন না_ রিপ্লে টা শেষে মীম দেখলো ৭-৮ দিনে গল্পটা,১০ হাজার লাইক এবং ৩ হাজার কমেন্ট পড়ে গেছে.. মীম পুরা মাথায় হাত কি অবস্থা এ এতো কমেন্টের মাঝে সে আমার কমেন্ট কিভাবে খুজে পাই এতো অনেক কঠিন ব্যাপার..মীম আবার রিপ্লে দিলো "আচ্ছা এতো কমেন্টের মাঝে আমার কমেন্ট কি করে খুজে পান আপনি?" প্রায় ১০ মিনিট পর রিপ্লে এলো " হুম কষ্ট হয় আপনার কমেন্ট টা খুজতে তাই রিপ্লে দিতে দেরি হয় সরি মাইন্ড করবেন না" মীম সাথে সাথে রিপ্লে দিলো "আপনি কি পাগল নাকি? এতো রিপ্লের কি দরকার আছে? কত তো দেখলাম কমেন্ট আছে কিন্তু রিপ্লে নাই আর আপনি সত্যি আজব মানুষ" কিছুক্ষণ পরে রিফাত রিপ্লে দিলো" সবার,কমেন্ট থেকে আপনার কমেন্ট টা আর আপনি অনেক আলাদা সবাই তো নাইচ গুড এই সব দিছে আর আপনি আমাকে কিছু ভালো কথা বলেছেন তাই কষ্ট করে হলেও খুজে বের করে রিপ্লে দি" মীম রিপ্লে পেয়ে বললো " ওহ তাই বুঝি জানা ছিলো না,, জেনে খুশি হলাম আর আপনিও অনেক ভালো মানুষ না হলে কমেন্ট এর রিপ্লে না চেয়ে ইনবক্স এ আসতে চাইতেন" কিছুক্ষণ পরে রিফাত এর রিপ্লে "যদি কখনো রিপ্লে থেকে ইনবক্স আসার যোগ্য হই আসবো" আর এই ভাবে কিছু জানা শোনার মাঝে কেটে গেলো অনেক দিন.. আর এইটাই বুঝি fb ইতিহাসে বেশি রিপ্লে দেওয়ার Record আর এতো রিপ্লে হওয়ার পরেও.. কেউ কাওকে কখনো দেখেনি. এবং. কেউ কারো id তে ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট ও দেই নি.. একে অন্যকে জানা শোনার মধ্যে কিছু ভালো লাগাও কাজ করছিলো.. মীম এর কাছে রিফাতের কাছে.. এই রিপ্লে গুলো ঘটনা থেকে অনেক ঘটনা বহুল প্রায় ২ মাস কেটে গেলো এই ভাবে.. মীম এর সাথে কথা বলতে বলতে রিফাতের মনে ভালো লাগা টা ভালোবাসা হয়ে গেছে অনেক আগেই. কিন্তু কখনো বলেনি রিফাত মীম কে.. কারণ,, হয়তো সে তার যোগ্য না এই ভেবে.. তবে,, আজ রিফাত তার মনের কথাটা মীম কে জানিয়ে দিয়েছে এখন শুধু অপেক্ষা রিপ্লের.. হ্যা রিপ্লে এলো মীম বললো "আচ্ছা তুমি আমাকে কখনো..দেখনো নি আমি যদি দেখতে,খারাপ হই তাহলে এই ভালোবাসা কিন্তু থাকবেনা. " রিফাত রিপ্লে দিলো " আমি তোমাকে না দেখে ভালোবেসেছি তাই তোমার রূপ কে নয় তোমার মন কে ভালোবেসেছি আর আমি চাই ঐ মনটা শুধু আমার থাক.. কারণ, রূপ ক্ষণস্থায়ী আর মন সারাজীবনের. তাই তুমি যেমন ই হও না কেনো আমি তোমাকে চাই আর একটা কথা তুমি হয়তো মনে কররে পারো এই ভাবে ভালোবাসা হয় না আমি জোর করবো না কিন্তু আমি শুধু ভালোবেসে টাইম পাস করতে চাই না আমি আমার ভালোবাসা টুকু সারাজীবন একজন কে আর তোমাকে দিতে চাই আমি তোনাকে বিয়ে করতে চাই শুনতে হয়তো আদ্ভুত এবং অবাস্তব তবে আমি এইটাই সত্যি. আর আমি তোমার যোগ্য কিনা জানিনা.. তবে আমার যতটুকু আছে আমি খুশী আর তোমাকেও খুশী রাখতে পারবো আমি মনে করি এইবার তুমি বলো তোমার ইচ্ছাই আমার শেষ ইচ্ছা" মীম কথা গুলো দেখে বললো "হুম আমিও তোমাকে ভালোবেসে ফেলেছি.. কিন্তু বলিনি.. আজ মনে হচ্ছে বলা উচিৎ জানি এইটা অন্যরকম ভালোবাসা তাই ভয় হয় আমি কি তোমাকে সত্যি পাবো? নাকি না পাওয়া কষ্ট টা নিয়ে কাটাতে হবে এইটা শুধু বার বার ভাবি.. তবে আমিও তোমাকে চায়" রিফাত রিপ্লে দিলো "আচ্ছা ঠিক আছে দেখছি কি করা যায়".. এই রিপ্লে দেওয়ার পরে মীম বললো " কি দেখবা" কিন্তু কোনো রিপ্লে নাই.. এই ভাবে ২ দিন কেটে গেলো.. মীম অপেক্ষা করছে রিফাতের কিন্তু সে আর আসে নাই.. এই দিকে মীমের এর বিয়ের জন্য তার বাবা মা পাত্র দেখা শুরু করলো আর মীম তাদের এক মাত্র মেয়ে তাই ভালো পাত্র তারা চায় আর মীম ও বাবা মায়ের অবাদ্ধ হতে পারবে না.. এই ভাবে অনেক ছেলে দেখার পর একটা ছেলেকে পছন্দ হলো তাদের ছেলেটির নাম ঘটক বলেছে জুবায়ের.. মীম এর বাবা মা রাজি হয়ে গেলো মীমের বাবা মা মীম কে বলেছিলো ছেলের সাথে কথা বলতে কিন্তু.. মীম বললো তোমরা দেখেছো আমার দেখার কিছু নাই.. আমি রাজি.. আগামী সপ্তাহে বিয়ে.. মীম রিফাত এর অপেক্ষা করলো কিন্তু রিফাত এলো না. মীম শেষ বারের মত রিপ্লে দিলো.. "আগামী সপ্তাহে আমার বিয়ে। আমি না করতে পারলাম না,, তুমি কোথাই আছো?? আমার যে কষ্ট হচ্ছে.. তুমি না আমাকে ভালোবাসো তবে এই কথাটি প্রকাশ করে কেনো দূরে গেলে? কেনো বললে সারাজীবন আমাকে কাছে রাখতে চাও আমি যে আর পারছি না যাই হোক ভালো থেকে তুমি আমি কেমন থাকবো জানিনা বাই" এই দিকে জুবায়ের ও বলেছে সে মেয়েকে না দেখেই বিয়ে বড়রা যেটা ভালো বোঝে সে সেটাই মেনে নিবে. আর জুবায়েরের মার কাছে শুনেছে মেয়েটি অনেক সুন্দরী.. আমার। সাথে নাকি খুব মানাবে.. আর দুজন দুজন কে না দেখেই ১ সপ্তাহ পর বিয়ে হয়ে গেলো.. বিয়ের আগের দিন অনেক কেদেছিলো মীম ফরসা মুখটা লাল হয়ে গিয়েছিলো কিন্তু কাওকে বুঝতে দেই নি.. মীম.. বিয়ের রাতে বাসর ঘরে জুবায়ের প্রবেশ করলো..ঘরে আলো জলছিলো আর সেই আলোয় স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছিলো মীম কাদছে ফরসা চেহারায় পানি গুলো লেগে আছে আর লাইট এর আলোক চিক চিক করছে রিফাত কাছে গেলো কিন্তু মীম মাথা নিচু করে দিলে.. জুবায়ের ঘোমটা সরিয়ে মুখ টা উঠিয়ে চোখের পানি মুছে দিলো.. আর বললো কি হয়েছে তোমার কাদছো কেনো? কারো কথা মনে পড়ছে? নাকি বাড়ির জন্য মন খারাপ মীম কিছু না বলে চুপ করে আছে.. জুবায়ের বললো.. কি হলো বলো আমাকে.. আচ্ছা তোমার ফোন টা কই.. মীম এইবার বললো কেনো? তোমার fb তে যাও.. আমার ইচ্ছে নাই.. জুয়ের বললো আমার দরকার আছে প্লিজ যাও. অনেক বার বলার পর মীম fb তে গেলো.. দেখলো রিফাত রিপ্লে দিছে.. " তোমাকে কষ্ট দেওয়ার জন্য দুঃখিত,, কিন্তু আমি যেটা বলেছি সেটাই করেছি তোমাকে চেয়েছি সেই তোমাকেই পেয়েছি. অদ্ভুত হলেও সত্যি আমার পুরো নাম জুবায়ের আহম্মেদ রিফাত আশা করি আর কিছু বলতে হবেনা" মীম কমেন্ট টা দেখে সাথে সাথে জুবায়ের মানে রিফার কে জড়িয়ে ধরে বলে এই তুমি এমন কেনো? করলা আমার কত কষ্ট হইছে জানো? আমি হয়তো এই কষ্ট নিয়ে বেশি দিন. বাচতে পারতাম না কথা গুলো বলছে আর কাদছে.. রিফাত মীম এর চোখের পানি মুছে কুপালে একটা চুমি দিয়ে বললো. আমি এমন ই কিন্তু তোমার জন্য অন্যরকম আর চেয়েছি তোমাকে তাই পুরোটা পেয়েছি এখন নিজের কাছে কথা দিলাম কখনো কষ্ট দিবো না আজ থেকে.. আর একটা কথা আমি কি এখন "কমেন্ট রিপ্লে" থেকে ইনবক্স এ আসতে পারি? মীম হেসে বললো. প্রফাইল টাই আজ থেকে তোমার আর তোমার প্রোফাইল টা আমার বুঝছো.. হুম বুঝছি.. এই ভাবে রিফাত আর মীমের ভালোবাসা হ্যাপি হ্যাপি..... . (অনেক চিন্তা ভাবনা করছিলাম নতুন কিছু উপহাত দেওয়ার কিন্তু,, টপিক পাচ্ছিলাম না তাই ভাবলাম একটু অদ্ভুত কিছু আপনাদেত উপহার দি.. তাই এই গল্পটা লেখা. আমি জানিনা এমন টা হয় কিনা পুরোটা না হক আংশিক ও হয় কি না..কারণ, এইটা বাস্তব জীবন গল্পেত মত সাজানো গোছানো না. আর যদি এমন টা হয় তাহলে বলবো আপনার ভালোনাসা টা এই গল্পেত মত অন্যরকম ও স্পেশাল.. ভাবতে ছি এই রকম টা যদি বাস্তবে আমার জীবনে হয়.. তাহলে বেশ ভালো হয় আমি স্পেশাল কাওকে চায়.. হা হা হা. যাই হোক. এমন হবে কিনা সেইটা সময় বলবে. গল্পটা কেমন হয়েছে অবশ্যই জানাবেন. আপনার মতামত এর অপেক্ষাই রইলাম..আবার আসবো নতুন এবং অদ্ভুত ভালোবাসার গল্প নিয়ে.. ধন্যবাদ)

কোনো মন্তব্য নেই for "কমেন্ট রিপ্লে"

Berlangganan via Email