প্রেমের কাহিনী

শুভ সকাল

লেকখঃ মেহেদী হাসান সৌর আজ থেকে কিছুদিন আগে ঈদের ছুটিতে বাড়ি যাচ্ছি ট্রেইনে করে যাবো টিকেট কাটার যন্য টিকেট কাউন্টারের সামনে যেতেই দেখি অনেক বড় একটা লাইন। লাইনে দাঁড়িয়ে আছি এমন সময় দেখলাম প্লাটফর্মে বসে আছে এক সুন্দরী মেয়ে,, তার খুলে ছিল একটা ফুটফুটে সুন্দর বাচ্চা,, বাচ্চা টাকে তার খুলে দেখে মনে করে ছিলাম তার বাবু,, কিন্তু না এইটা ছিল তার বড় বোনের বাচ্চা,,, তারপর টিকেট কাটার পর হাতে নিলাম আর ট্রেইনে উঠে বসার জায়গা খুঁজে বের করতে লাগলাম,,, আমার বসার জায়গা ছিলো ৪১ নাম্বার। আর মজার বেপার কি ওই মেয়েটার ছিল ৪০ নাম্বার,,,,, তার আপুরা বসে ছিলো আমাদের পিছনে একটা জায়গায়। গাড়ি চলতে শুরু হলো প্রায় 1 ঘন্টার থেকে বেশি গাড়ি চলছে,। এর মধ্যে মেয়েটা নিজের অজান্তেই ঘুমিয়ে পড়ে,,আমার কাধে তার মাথা পড়ে যায় আমিও তাকে কিছু বলিনি চুপ করে বসে ছিলাম,আর আমি তাকে দেখছি হঠাৎ তার ঘুম ভেঙে যায় আর আামার কাধে মাথা দেখে লজ্জায় মুখ ঘুরিয়ে বাহিরের দিকে তাকিয়ে আছে। আসলে মেয়েরা তো সহজেই কোনো ছেলের সাতে পারে না। তার কথা বলতে লজ্জা পায়। তাই আমিই প্রথম নিজে থেকে কথা বললাম,,, তাকে জিজ্ঞেস করলাম আপনার নাম কি?? সে আমার দিকে তাকিয়ে বললো কেন?? আমি বললাম না এমনি বলা যাবে..? তারপর সে তার নাম বললো (আইরিন)। কিন্তু আমার নামটা জিজ্ঞেস করলো না।। কি করেন?জিজ্ঞেস করায় উওর দিলো,,, একটা সরকারি কলেজে লেখা পড়া করে। তারপর এইভাবে অনেক কথা হলে আমাদের পরে একদম,,, ফ্রেন্ড এর মতোই হয়ে গেলাম,, পরিচয় হলো দুইজনের,,, তারপরে কথার মধ্যে হঠাৎ করে বলে উঠলো সে নাকি পরের স্টেশনে নেমে যাবে। কি করবো বুঝতে না পেরে থাকে জিজ্ঞেস করলাম ফেইসবুক চালান?? সে বললো চালাই। পরে আইডি নাম জিজ্ঞেস করলাম এবং সে শুধু,,,,,, ,, আইরিন আক্তার প্রাপ্তি বলতে পারলো,,,,,গাড়ি স্টেশনে আসার সাথে সাথে নেমে গেলো।। যতদূর সম্ভব দেখা যায় তাকে দেখছিলাম।। রাতে বাসায় ফিরে ফেইসবুকে তার নাম লেখে আইডি খুজতে লাগলাম। হঠাৎ চোখের সামনে ভেসে ওঠলো তার বোনের মেয়ের ছবি,,, আর ভাবলাম এটাই হয়তো তার আইডি,,,কারন তার বোনের মেয়ের ছবি দেওয়া তাই। রিকুয়েষ্ট দিলাম,,, একসেপ্ট করলো,,,,,, নক করলাম ইনবক্সে।। রিপ্লাই দিল।। শুরু হলো কথা,, #চলবে??? ফেসবুকে আমি

কোনো মন্তব্য নেই for "প্রেমের কাহিনী"

Berlangganan via Email