Recents in Beach

আমি তুমি ও সে

Writer:(Asad Rahman ) টিপ দরজা খুলতে যায়, এই অসময়ে কে আসলো। , দরজা খুলে তাকিয়ে দেখে সৌমিক দাঁড়িয়ে আছে.. টিপের ঠোঁটের কোণে হাসি ফুঁটে ওঠে। , __আসতে বলবে না.. __সৌমিকদা আসো ভেতরে। __টিপ আমায় তো ভুলেই গেলে, আর সেদিনের পর আর কোন খোঁজই পাচ্ছিলাম না। একবার তো জানাতে, নাকি প্রয়োজন শেষে বলে আমাকে আর জানাওনি। __দাদা কি যে বলোনা, তুমি আমার জন্য যা করছো তা কখনও ভুলতে পারবো না। , __তারপর কেমন আছো তুমি টিপ(টিপের দিকে তাকিয়ে দেখে পুরোই গৃহিণী হয়ে গেছে কোমরে আচঁল গুজে আছে। , টিপ রান্নাঘরে চলে যায় কতদিন পরে সৌমিক আসছে, সেই কবে তার সাথে শেষ দেখা হয়েছিলো। তখন সবাই জানতো সৌমিকদা টিপকে পছন্দ করে, শুধু পছন্দ না ভালোও বাসে। , হিমান্ত বাবুকে নিয়ে নাজেহাল। সেই থেকে কাঁদছে, হিমান্ত কোলে নিয়ে বারান্দায় যায়, খেলনা দেয়, কোলে নিয়ে, আবার রুমে আসে.. , না আআ বাবু কাঁদেনা, তুমি কি নিবে, এই খেলনা দেখো এই.. , বাবু আরো জোরে কেঁদে দেয়। হিমান্ত এবার বাবুকে বিছানায় রেখে নিজেই শুয়ে পরে। আল্লাহ বাঁচাও আমারে, এই মা মেয়ে দুজনেই এক সবসময় আমাকে দৌড়ের উপর রাখে। , হিমান্ত হিয়াকে কোলে তুলে নেয় এর মধ্যে হিমিকা ফোন দেয়। , হিমান্ত ফোন রিসিভ করে কথা বলে.. , হিমি প্লিজ, আমি আর পুরনো কথা তুলতে চাইনা, আমি কি করবো বলো, সন্তান তো আমার, আমি তাকে সময় দিতে চাই। যতদিন আমরা একসাথে থাকি আমার সন্তান আমার কাছেই থাকবে, তারপরও আমি আমার সন্তানকে আমি কারো কাছে দিবো না। , তুমি আমাকে আর ফোন দিও না। হিমান্ত ফোন কেটে দেয়। আবার হিমিকা ফোন দেয়, হিমান্ত ফোন বন্ধ করে রাখে। , হিয়াকে নিয়ে নিচে নামতেই দেখে টিপ কার সাথে যেন কথা বলছে হেসে হেসে। , হিমান্ত হিয়াকে কোলে নিয়ে নিচে আসে। , টিপ হিমান্তকে দেখই উঠে দাড়ায়। , হিমান্তর কোল থেকে হিয়াকে নিয়ে সৌমিকের কোলে দেয়। সৌমিক ছলছল চোখে চেয়ে থাকে হিয়ার দিকে। , এটা তো কথা ছিলোনা টিপ, হিয়ার কঁপালে আলতো করে চুমু এঁকে দেয় সৌমিক। , টিপ চুপ হয়ে যায়, হিমান্ত চুপ করে দেখছে, সৌমিক হিমান্তকে ডাক দেয়.. , __আপনিই হিমান্ত, তাই না, টিপের মুখে অনেকবার আপনার নাম শুনেছি, তবে দেখার ইচ্ছা ছিলো সৌভাগ্যবানকে, টিপ যার ভাগ্য। , হিমান্ত চুপ করে শুনছে আর মনে মনে রেগে আগুন। , __আমি সৌমিক, টিপের বন্ধু। , সৌমিক নামটা শুনেই আগুন ধরে যাচ্ছে হিমান্তের মাথায়, হিমিকা যে ছবি দেখিয়েছিলো তা সত্যি তাহলে। , আজ তোমাকে কে বাঁচাবে টিপ। , সৌমিক হিয়াকে কোল থেকে হিমান্তের কোলে দেয়.. , __আমানত আপনার কাছে দিয়ে দিলাম, আমার আমানত নয়, যিনি সৃষ্টি করেছেন আপনার আর টিপের কোল আলো করে তাকে উপহার দিয়েছেন, তার আমানত। , তাকে পেয়েছেন আপনি লাকি ওয়ান। তাই তাকে রক্ষা করুন, শুভ কামনা আপনার জীবনে। , হিমান্ত শুকনো হাসি হেসে টিপের দিকে তাকায়। টিপ হিমান্তের চোখের দিকে তাকিয়ে চুপ করে আছে, হিমান্তের রাগ স্পষ্ট দেখতে পাচ্ছে। , টিপ ভয় পেয়ে যায়। , সৌমিক চলে যায় যাওয়ার আগে টিপের মুখের দিকে তাকায়, টিপ মাথা নিচু করে ফেলে। , হিমান্ত সাথে সাথেই বের হয়ে যায়। , টিপ হিয়াকে নিয়ে শুয়ে আছে, রাত প্রায় একটা বাজে। , হিমান্ত রুমে এসে দেখে টিপ ঘুমিয়ে আছে, হিমান্ত বারান্দায় বসে সিগারেট খাচ্ছে একটার পর একটা। আজ অনেক নেশা করেছে হিমান্ত। বন্ধুদের সাথে আড্ডায় ছিলো, তারা বললে না করতে পারেনি হিমান্ত। , আজকালকার ফ্যাশন হয়ে গেছে এখন এটা। , টিপ উঠে পরে বাবুর কান্নায়, সিগারেটের গন্ধ নাকে ভেসে আসছে। টিপ উঠে বারান্দায় যায়, গিয়ে দেখে হিমান্ত সিগারেট খাচ্ছে.. , বাবুর অসুবিধা হবে, কেউ যেন সিগারেট না খায় এখানে বসে। , হিমান্ত শুনেও না শোনার ভাব করে খেতে থাকে। এবার টিপের রাগ লাগে, টিপ হিমান্তে হাত থেকে সিগারেট টেনে ফেলে দেয়। হিমান্ত এবার রাগে ঠাস করে টিপের গালে সজোরে থাপ্পর মারে। টিপ ফ্লোরে পরে যায়, আমার সামনপ আসবিনা তুই, তোর মত মেয়েদের কোন অধিকার নাই আমার সামনে আসার। টিপ উঠে দাড়ায়, গালে হাত দেয় টিপ, হিমান্ত সজোরে আরো একটা থাপ্পর দেয়, টিপ গ্রিলের উপর পরে কঁপাল কেটে যায়, নাগর আসছে তো নাগর তাই না। নাগর দেখেছিস আজ, তোকে আজ বুঝাবো হিমান্ত রাগলে কি করতে পারে। , হিমান্ত টিপের হাত টেনে এনে বিছানায় ফেলে দেয়, টিপের চোখ থেকে পানি পরছে, কপাল অনকেটাই কেটে গেছে। , __চলে যা আমার বাড়ি থেকে, তোর মুখও দেখতে চাই না আমি। , টিপ আর কিছু ভাবতে পারছে না, এত জোরে আঘাত করছে হিমান্ত টিপ ওয়াশরুমে ছুটে যায়, গরগর করে বমি করে দেয় টিপ। , মুখ লাল হয়ে আছে, মাথা ঘুরাচ্ছে। টিপ এসে বাবুর কাছে যেতেই হিমান্ত বাবুকে কোলে নিয়ে নেয়। ও আমার সন্তান তুই ভাবছিস ওকে আমি দিয়ে দিবো কখনও না। , টিপ এবার হাউমাউ করে কেঁদে দেয়, কি করবে ও। , মুহুর্তের মধ্যে এটা কি হলো গেলো। এতদিন চুপ করে সহ্য করে যাচ্ছে.. , , চলবে... , (মাদকাসক্ত হয়ে যারা বউকে পেটান তারা কি আদৌ জানেন তার জীবনে মাদকের বাইরেও অনেক ভালো কিছু থাকে। যা তারা ভুলে যান। , একটি পরিবার, সন্তান, এবং নিজেকে বাঁচাতে মাদককে না বলুন, মাদকাসক্ত হয়ে বউকে পেটানো জানোয়ারের মত কাজ। তাই মাদক নয়, সুস্থ পরিবার উপহার দিন। তবুও দিন শেষে ভালো থাকুক ভালোবাসা।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ