Sponsor

banner image

recent posts

শেষ পরিণতি বা পরিবর্তন

লেখকঃ মোঃআসাদ রহমান কোটচাঁদপু,ঝিনাইদহ প্রিয়ার কথা ভাবতে ভাবতে আমি আমার পিছনে তাকিয়ে যা দেখলাম তার জন্য আমি প্রস্তুত ছিলাম নাহ। আমি: প্রিয়ার কথা ভাবতে ভাবতে পিছনে ঘুরে তাকাতেই দূর থেকে আনিকা-কে আমার দিকে আসতে দেখতে পাই।আনিকা-কে দেখেই আমার মনে ভয়ের সৃষ্টি হয়। আনিকা আমাকে প্রিয়ার সাথে দেখে ফেলেনিতো এই চিন্তায় আমার কপাল বেয়ে ঘাম ঝরতে থাকে। আনিকা আমার যতই কাছে আসছিলো আমার মনের ভিতরে ততই চিন্তা বৃদ্ধি পাচ্ছিলো।আনিকা যখন আমার সামনে চলে আসে আমি তখন অন্ন মনস্ক থাকার অভিনয় করি। আনিকাঃএই রাহুল,তুমি এতো রোদে এখানে দাড়িয়ে আছ কেন??? আর নিজের এ কি অবস্থা করেছো তুমি,তোমার কপাল বেয়ে ঘাম ঝরছে।এই নেউ টিসু পেপারটি দিয়ে নিজের ঘাম মুছে নেও। আমিঃআনিকা এর কথা শুনে আমি ভালো করেই বুঝতে পারছিলাম যে আনিকা আমাকে আর প্রিয়াকে একসাথে দেখেনি। আনিকার কথা শুনে চিন্তা মুক্ত হয়ে আমার মনে হচ্ছিল আমি যেন নিজের জীবন ফিরে পেলাম। আনিকাঃকি হলো রাহুল,তুমি কি নিয়ে এতো ভাবাভাবি করা শুরু করলে!!! আমিঃআমি ভাবছিলাম আমি যার জন্য করলাম চুরি সেই বলে আমি চোর। আনিকাঃতুমি এইসব কীসব কথা বলছো আমি কিছুই বুঝতে পারছিনা।তুমি আমার জন্য কি চুরি করলে আবার!!! আমিঃতুমি এখনো বুঝতে পারনি,আমি এখানে এমনি এমনি দাঁড়িয়ে ছিলাম নাকি।আমিতো তোমার জন্য অপেক্ষা করছিলাম। আনিকাঃতাই নাকি তুমি আমার জন্য রোদের ভিতরে এতো কষ্ট করে দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে আমার জন্য অপেক্ষা করছিলে। আমিঃতোমার জন্য অপেক্ষা না করলে আমি অন্য কার জন্য অপেক্ষা করবো তুমিই বল। আনিকাঃআমার জন্য এতো কষ্ট করে দাঁড়িয়ে থেকে অপেক্ষা করার জন্য এত্তগুলা ভালবাসা (গাল টেনে) তোমার জন্য জান। কিন্তু তুমি যখন অন্য মেয়েদের সাথে কথা বল তখন আমার একটুও ভালো লাগে না। আমিঃকি করবো বল জান,সবাই আমার পিছনে ঘুরে আমার সাথে কথা বলার জন্য।আর তুমিতো জান আমি শুধুমাত্র তোমাকেই ভালবাসি তাই-না। আনিকাঃহুম,আমিও তোমাকে অনেক ভালবাসি।আর তোমাকে এতো ভালবাসি বলেই মনের ভিতরে তোমাকে হারানোর ভয় সৃষ্টি হয়। আমিঃতুমি এসব কি বলছো আনিকা,আমি নিজেকে ভুলতে পারলেও তোমাকে কখনো ভুলতে পারবো না। আনিকাঃতুমি কি যে বল রাহুল,তোমার কথা শুনে তোমার মাঝে হারিয়ে যেতে ইচ্ছা করে। কিন্তু আমরা আমাদের রিলেশনশিপ এর কথা ইউনিভার্সিটির সকলকে প্রকাশ করছিনা কেন বলবে??? আমিঃআমাদের রিলেশনশিপ এর কথা আমিতো প্রকাশ করতেই চাই।কিন্তু আমার পাপা যদি জানতে পারে আমি রিলেশনশিপ এ গিয়েছি, তাহলে আমাকে ঘর থেকে বের করে দিবে। এখন তুমিই বল,আমি কি আমাদের রিলেশনশিপ এর কথা সবাইকে প্রকাশ করবো??? কিন্তু তুমি যদি বল,তোমার জন্য আমি ঘর থেকে বেরিয়ে আসবো। আনিকাঃতুমি এসব কি বলছ রাহুল,আমার জন্য তোমাকে এতো কষ্ট করতে হবে না।আমি কাউকে আমাদের রিলেশনশিপ এর কথা বলবো নাহ। আমিঃহুম,এর জন্যই আমি তোমায় এতো ভালবাসি।কারণ কেউ আমাকে না বুঝলেও তুমি আমাকে আমার থেকেও বেশি বুঝতে পার। আনিকাঃহয়েছে,আর বলতে হবে না।চল ক্লাসের সময় হয়েছে গেছে ক্লাসরুমে যাই। আমিঃহুম,অনেক সময় হয়ে গেছে তাড়াতাড়ি চল লেকচার শুরু হয়ে যাবে তাহলে। আনিকার সাথে ক্লাসরুমে প্রবেশ করেই আমি আমার বন্ধুদের কাছে চলে আসি। অধ্যাপক ক্লাসরুমে প্রবেশ করে তার লেকচার শেষ করার পর আমি এবং আমার বন্ধুবান্ধব ইউনিভার্সিটির ভিতরে একসাথে আড্ডা দেওয়া শুরু করি। ঠিক সেই মুহূর্তে আমি ইউনিভার্সিটির ভিতরে একটি মেয়েকে প্রবেশ করতে দেখতে পাই। মেয়েটি এতটাই সুন্দর ছিল যে মেয়েটিকে দেখে আমি চোখ ফিরাতে পারছিলাম নাহ। আমাকে ঐ মেয়েটির দিকে তাকিয়ে থাকতে দেখেই আমার বন্ধুবান্ধব সকলে এই মেয়ে নিয়ে কতো নাম্বার হবে বলে মজা করা শুরু করে দেয়। আমি আমার বন্ধুবান্ধবদের ঠাট্টা না শুনে আড্ডা স্থল ছেড়ে মেয়েটিকে অনুসরণ করা শুরু করি। মেয়েটির পিছু নিতে নিতে আমি দেখতে পাই অনেক ছেলে-মেয়ে ইউনিভার্সিটিতে ভর্তি হওয়ার জন্য এসেছে। মেয়েটি এই ইউনিভার্সিটিতে ভর্তি হবে শুনে আমার মনের ভিতরে লাড্ডু ফুটা শুরু হয়ে যায়। মেয়েটি ইউনিভার্সিটির ভবনে প্রবেশ করায় আমি ভবনটির বাইরে মেয়েটির জন্য অপেক্ষা করা শুরু করে দেই। কিছুসময় অপেক্ষা করার পর আমি মেয়েটিকে ইউনিভার্সিটির ভবনটি থেকে বের হয়ে আসতে দেখি। আমি মেয়েটিকে দেখে নিজেকে আর কন্ট্রোল করে রাখতে পারিনি। মেয়েটির যাওয়ার পথে আমি এমন কিছু করবো তা মেয়েটি ভাবতেও পারেনি। চলবে...😜 #গল্পের অংশটি ভালো লাগলে লাইক,কমেন্ট,শেয়ার করে অবশ্যই আমার পাশে থাকবেন আশা করি🙂 😇গল্পের পরবর্তী অংশ পড়ার জন্য আমাকে #Friend_Request পাঠিয়ে অথবা আমাকে #Follow করে আমার পাশেই থাকবেন আশা করি😇 🙂গল্পের পরবর্তী অংশটি খুব শীঘ্রই পোস্ট করবো🙂 😉সকলকে মনযোগ দিয়ে গল্পের অংশটি পড়ার জন্য ধন্যবাদ😉 লেখকঃ মোঃআসাদ রহমান কোটচাঁদপু,ঝিনাইদহ
শেষ পরিণতি বা পরিবর্তন শেষ পরিণতি বা পরিবর্তন Reviewed by শেষ গল্পের সেই ছেলেটি on জুলাই ২৬, ২০১৯ Rating: 5

কোন মন্তব্য নেই:

Blogger দ্বারা পরিচালিত.